পেঁপের পুষ্টি ও ঔষধি গুণ

আজ আপনাদের জানাবো পুষ্টি ও ঔষধিগুণে সেরা একটি ফলের নাম ও উপকারীতা। যা আমরা হয়তো জেনে খায় বা না জেনে অথবা এর স্বাদে। আর এই ফলটি হচ্ছে পেঁপে। সারা বিশ্বেই জনপ্রিয় ফলগুলোর মধ্যে একটি হল পেঁপে। পুষ্টিগুণের জন্যই সবাই এই ফলটি বেশি পছন্দ করেন। পেঁপেতে আছে ভিটামিন এ, সি, কে, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম ও প্রোটিন। এছাড়াও প্রচুর পরিমাণ ফাইবারও রয়েছে। আর পেঁপেতে ক্যালোরির পরিমাণ খুবই কম। সেই সঙ্গে স্বাদেও মিষ্টি, যে কারণে সুগার রোগীদের প্রতিদিন একবাটি করে পাকা পেঁপে খেতে দেওয়া হয়।

এছাড়াও অনেকে হজমের সমস্যায় ভোগেন। এদের প্রতিদিন পেট পরিষ্কার হয় না, ফলে শরীর থেকে দূষিত পদার্থ বেরুতে পারে না। তাই তাদের প্রতিদিন পাকা পেঁপে খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা।

পেঁপে একটি সুস্বাদু এবং স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী একটি ফল। পুষ্টিগুন বিবেচনায় পেঁপে অনেক ফলের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে। এতে রয়েছে অনেক রোগের নিরাময় ক্ষমতা। পেঁপে কাঁচা ও পাকা দুই ভাবেই খাওয়া যায়। কাঁচা পেঁপে সালাদে ও রান্নায় এবং পাকা পেঁপে ফল হিসেবে খাওয়া যায়। পেঁপে আমিষকে হজম করে সহজেই এবং পরিপাক তন্ত্রকে পরিষ্কার করে। চলুন জেনে নেওয়া যাক পেঁপের পুষ্টি ও ঔষুধি গুণ-

পেঁপের পুষ্টি ও ঔষধি গুণ:

  • হার্টের সমস্যায় উপকারী।
  • পেঁপে মুখের রুচি ফেরায়। সেই সঙ্গে খিদেও বাড়ায়।
  • পেঁপে পেট পরিষ্কার করে।
  • যাদের অর্শ্ব রোগ আছে তাদের ক্ষেত্রেও খুব ভালো কাজ করে পেঁপে।
  • কোলেস্টেরল কমায়।
  • ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।
  • চুলের জন্যও পেঁপে খুব উপকারী।
  • পেঁপে প্রতিদিন মুখে মাখলে মুখের লাবণ্য বজায় থাকে।
  • কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করতে খুবই কার্যকরী।
  • ডেঙ্গি প্রতিরোধে পেঁপের ভূমিকা উল্লেখযোগ্য!
  • কাইমোপ্যাপিন নামের এনজাইম থাকায় পেঁপে অস্টিওআথ্রাইটিস ও রিউমেটয়েড রোগ সারায়।
  • বার্ধক্যে দৃষ্টিশক্তিহীনতা দূর করে।
  • পেঁপেতে থাকা আঁশ অ্যাসিডিটি বা অম্লতা, পাইলস ও ডায়রিয়া দূর করতে পারে।
  • কাঁচা পেঁপে দেহের সঠিক রক্ত সরবরাহে কাজ করে।
  • নিয়মিত পেঁপে খেলে উচ্চ রক্ত চাপের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।
  • পেঁপে প্রোটিন চর্বি ও কার্বোহাইড্রেট ভাঙতে সাহায্য করে।
  • কাঁচা পেঁপে বা এর জুস রক্তে চিনির পরিমাণ কমায়। আর এটি শরীরে ইনসুলিনের পরিমাণ বাড়ায়।
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।
  • হজমশক্তি বাড়ায়।
  • ভিটামিন বি এর অভাব পূরন করে।
  • হাড় মজবুত করে।
  • শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা কমে যায়।
  • দাঁতের যন্ত্রণার অব্যর্থ ওষুধ হল পেঁপে।
  • অন্ত্রের কৃমি রোধ করে পেঁপে।
  • ব্রণের দাগ কমিয়ে উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

পেঁপের পুষ্টিমান:

‘১০০ গ্রাম পেঁপেতে শর্করা থাকে ৭.২ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ৩২ কিলোক্যালরি, ভিটামিন সি ৫৭ মিলিগ্রাম, সোডিয়াম ৬.০ মিলিগ্রাম, পটাশিয়াম ৬৯ মিলিগ্রাম, খনিজ ০.৫ মিলিগ্রাম এবং ফ্যাট মাত্র ০.১ গ্রাম। এই উপাদানগুলো শুধু শরীরের চাহিদাই মেটায় না, রোগ প্রতিরোধেও অংশ নেয়।’ প্রচুর পরিমাণ আঁশ, ভিটামিন সি, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট আছে পেঁপেতে। এই উপাদানগুলো রক্তনালিতে ক্ষতিকর কোলেস্টেরল জমতে বাধা দেয়। তাই হৃদস্বাস্থ্য সুরক্ষায় এবং উচ্চরক্তচাপ এড়াতে পেঁপে খেতে পারেন নিয়ম করে।

আরএম/ ৩ জুন, ২০২১

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × one =

12/1 Ring Road, Shyamoli, Dhaka

09666 77 44 11

dprchospital@dprcbd.com